মিরপুরে পতাকা উড়িয়ে অনুশীলন, কারণ ব্যাখ্যা করল পাকিস্তান দল…।

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ও দুইটি টেস্ট খেলতে বর্তমানে বাংলাদেশ অবস্থান করছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। বাংলাদেশের মাটিতে পা রেখে সোমবার (১৫ নভেম্বর) প্রথম দিনের অনুশীলন করেছে হাফিজ-শাহিনরা। মিরপুরে পাকিস্তান দলের নেট প্র্যাকটিস করার সময় অভিনব একটি জিনিস ধরা পড়ে সবার চোখে। শের-ই-বাংলা একাডেমির পশ্চিম-উত্তর কোণে নেটের দুদিকে নিজেদের জাতীয় পতাকা টানিয়ে ব্যাটিং-বোলিং প্র্যাকটিস করতে থাকেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। তাদের এই পতাকা টানানো অভিনব লাগছে এই কারণে যে, বাংলাদেশে আগে কখনো কোনো সফরকারী দলকে এভাবে নিজ দেশের পতাকা টানিয়ে অনুশীলন করতে দেখা যায়নি।এরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। পাকিস্তানের পতাকা উড়িয়ে প্র্যাকটিসের পক্ষে-বিপক্ষে যুক্তিতর্ক চলতে থাকে দিনভর।

পাকিস্তান শিবিরের কারও সঙ্গে কথা বলার সুযোগ না থাকায়, কেন এভাবে পতাকা টানিয়ে অনুশীলন সেই সম্পর্কে জানা যায়নি। তবে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকেই এভাবে নেটের দুই পাশে পতাকা টানিয়ে নেট করছেন দলটির ক্রিকেটাররা। সদ্য সমাপ্ত বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে অনুশীলনে পাকিস্তানের শাহিন শাহ আফ্রিদি এবং মোহাম্মদ রিজওয়ানকে দেখা যায় পাকিস্তানের দুটি পতাকা কাঁধে করে নিয়ে আসতে। এরপর পতাকা দুটি অনুশীলনের মূল এলাকার পাশে পুঁতে দিয়ে খেলোয়াড়রা সেরেছিলেন প্রস্তুতি।

এরপর দলের কোচ সাকলায়েন মুশতাক ব্যাখ্যা করেন কেন ক্রিকেটাররা এভাবে জাতীয় পতাকা নিয়ে অনুশীলনে এসেছিলেন। তিনি বলেন, ‘এই দল পুরো দেশের (পাকিস্তানের) প্রতিনিধিত্ব করছে। দেখেই মনে হচ্ছে দেশের ২২ কোটি লোক যেন এক হয়ে আমাদের জন্যে গলা ফাটাচ্ছে।’এছাড়া পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের মিডিয়া ম্যানেজার ইব্রাহিম বাদিস জানান, ‘ক্রিকেটারদের মধ্যে দেশপ্রেম জাগ্রত করতে এই কৌশল চালু করেন হেড কোচ সাকলায়েন মুশতাক।

তিনি জাতীয় দলে যোগ দিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজের প্রস্তুতিতে এটি প্রথম চালু করেন। আইসিসি পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও আমরা তা অনুসরণ করেছি।’ এছাড়া দলের হেডকোচ সাকলায়েন মুশতাক ক্রিকেটারদের মধ্যে দেশপ্রেম ছড়িয়ে দিতে অনুশীলনে জাতীয় পতাকা রাখেন বলেও জানান তিনি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*